GEO T19 kaiOS Review in Bangla! সেরা ফোন কাইওস সাপোট্রেড জিও!

আসসালামু অলাইকুম

চলে আসলাম নতুন একটি আর্টিকেলে। আজকের আর্টিকেলে আমরা আলোচনা করতে যাচ্ছি Geo t19 ফোন নিয়ে! আশা করি আর্টিকেলটি আপনাদের কাছে দাড়ুন লাগবে।

আজকের আলোচনায় যা যা থাকছে:
জিও ফোন কী?
জিও ফোন ব্যাবহার করে কী লাভ?
জিও ফোনে কী কী ফিচারস রয়েছে?
জিও ফোনের ভালো দিক ও খারাপ দিক!
কাদের জন্য পারফেক্ট GEO T19?

ফোনটির মুল্য কত?
একনজরে ফোনের ফিচারসগুলি ইংরেজীতে!

জিও ফোন কী?

জিও নামটি হচ্ছে একটি মোবাইল ব্রান্ডের নাম এবং জিও ফোন বলতে এই পোষ্টটিতে GEO T19 কে বোঝানো হচ্ছে। জিও টি নাইন্টিন ফোনটি হচ্ছে একটি ফিচার বাটন ফোন! এতে রয়েছে একটি অপেরাটিং সিষ্টেম যেটীর কারনে ফোনটি হয়ে উঠেছে সাধারন থেকে অসাধারন!

এই ফোনের অপেরাটিং সিষ্টেম হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে KAIOS! মধ্যবিত্ত পরিবারের জন্য গুগল এই অপেরাটিং সিষ্টেম তৈরি করেছে!

geo t19 ফোন ব্যবহার করে কী লাভ?

প্রথমেই বলেছি এটি একটি কাইওস ফোন সুতরাং এটা ব্যবহার করে লাভ পাবেন। কেননা এটার যে মুল্য,উক্ত মুল্য দিয়ে আপনি ভালো কোনো এন্ড্রয়েড পাবেন না! অপরদিকে এই ফোনটিতে এন্ড্রুয়েড এর মতো অনেক সুযোগ সুবিধা থাকবে। পুড়োটা পড়ুন তাহলেই অনুমান করতে পারবেন কেন লাভ!

Geo t19 ফোনে যা যা ফিচারস রয়েছে!

এই geo t19 kaios ফোনে রয়েছে অসংখ্য ফিচার। এটিতে আপনারা পাবেন 2মেগাপিক্সেল ক্যামেরা যার ফলে দারুন ছবি তুলতে পারবেন। তবে ওটোতা সুন্দর হবেনা,কেননা আপনারা দেখেছেন বাটন ফোনের ক্যামেরা কিরকম টাইপের।
মজার বিষয় হচ্ছে আপনি এই ফোনের মাধ্যমে তাপমাত্রা মাপতে মারবেন।
এই ফোনে থাকছে kaios ষ্টোর অ্যাপ,যেটি ব্যবহারের করে অনেক অ্যাপ আপনার ফোনে ইন্সটল করতে পারবেন।
এই ফোনটিতে রয়েছে সবচেয়ে দারুন একটি ফিচার সেটি হচ্ছে 4জি নেটওয়াক। অথাৎ এই ফোনের ইন্টারনেটে 4G ব্যবহার করা হয়েছে যেটা কিনা দামী এন্ড্রুয়েড ফোনে থাকে। এটা খুব ইন্টারেষ্টিং একটা বিষয় যে বাটন ফোনে 4জি। আপনি এই ফোনটি দিয়ে ইন্টারনেট থেকে দাড়ুন ষ্পিডে ডাউনলোড করাসহ ব্রাউজিং করতে পারবেন।
এই ফোনের আরো দুটি ধামাকা হচ্ছে এই ফোনে আপনারা ডিফল্ট পাবে পাচ্ছেন facebook lite kaios and youtube kaios অ্যাপ। যার ফলে আপনারা ফেসবুকে বন্ধুদের সাথে আড্ডা দিতে পারবেন,বিনোদন নিতে পারবেন এবং সামাজিক সাইটের মজা পাবেন। দ্বিতীয়ত এটিতে ইউটিউব থাকায় আপনারা খুব সহজে ইউটিউব ভিডিও দেখতে পারবেন।

এই ফোনটিতে দুটি সিম প্রবেশের ঘাট রয়েছে।

আরো অনেক ফিচার যেগুলো আপনারা একনজরে নিচের থেকে দেখে নিতে পারেন!

Geo t19 ফোনের ভালো দিক ও খারাপ দিক

যেকোনো বস্তুর একটি ভালো দিক ও খারাপ দিক রয়েছে। GEO T19 ফোনের মাঝেও রয়েছে ভালো দিক ও খারাপ দিক!
ভালো দিক:
এই ফোনটিতে রয়েছে অসংখ্য ফিচার যার ফলে এন্ড্রুয়েডের 50% মজা এটাতে নিতে পারবেন। কেউ যদি ভালো দামে বাটন ফোন কিনতে চায় তাহলে তাকে এটি কিনতে আমি পরামশ করবো। এই ফোনে ফেসবুক থাকায় ও ইউটিউব থাকায় দেশ-বিদেশের খবর সহ সকল খবর সহজেই পাওয়া যাবে,শুধু যে খবরে সীমাবদ্ধ থাকবে তা নয় বরং যা যা আপনারা চান সেগুলো এখানে খুজতে পারেন! এই ফোনে কাইওস অ্যাপ ইন্সটল করার সুবিধা থাকায় ব্যাপারটা আরো ভালো লাগে।

খারাপ দিক
এই ফোনটিতে খারাপ দিকের প্রভাবও রয়েছে বটে। যেহেতু এটি একটি বাটন ফোন এবং এই ফোনে 4জি ইন্টারনেট সহ দামী ওএস লাগানো হয়েছে সেহেতু এই ফোনে ল্যাগ থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। এই ফোনের স্ক্রিনটা আমার কাছে মনে হয়েছে আরো একটু বড় করলে ভালো হতো।

কাদের জন্য পারফেক্ট এই ফোন

আমি সকলকে এই ফোনটি কিনতে পরামশ করবো না। যারা চান যে,একটু বেশিদামে ভালো বাটন ফোন কিনতে এবং অনলাইনে ভিডিও দেখতে তাদেরকেই আমি এই ফোনটি কিনতে পরামশ করছি। তারাই এই ফোন কিনুন যারা কিনা একটু বেশী দামে ভালো বাটন ফোন কিনতে চান!

ফোনটির মুল্য কত?

ফোনটির মুল্য হচ্ছে ৳২,৯৯০ টাকা।

একনজরে এই ফোনের ফিচারসগুলি ইংরেজীতে:

¤Mobile Type = button 4G, VoLTEGSM/CDMA
¤Network = 4G
¤SIM = Dual SIM
¤Display = 2.8 inch
¤Sound = Yes
¤RAM = 512 MB
¤4 GB = Built In Memory
¤Up to 32 GB = External Memory
¤CPU = Quad-Core ARM©Cortex©-A53 GPUIMG GE8100 @350MHz
¤Yes = GPRS/EDGE
¤WLAN = Wi-Fi/ Hotspot
¤Bluetooth = Yes
¤C’amera = 2MegaPixel
¤2MP = Front Camera
¤Video = Yes
¤OperatingSystem (os) = KaiOS
¤GPS = Yes,with A-GPS
¤FM Radio = yes
2000mAh = Battery capacity
¤Weight = 105g

আশাকরি আপনার কাছে পোস্টে ভালো লেগেছে যদি ভালো লাগে তাহলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে পারেন ধন্যবাদ

Leave a Comment

Your email address will not be published.