মোবাইল ফোন সব সময় ঠিক রাখার জন্য সেরা কয়েকটি উপায় দেখে নিন

আসসালামু আলাইকুম কেমন আছেন সবাই আশা করি ভালো আছেন ইনশাআল্লাহ আমিও খুব ভালো আছি তাই আজকে আপনাদের সামনে নতুন একটি আর্টিকেল নিয়ে হাজির হলাম আশাকরি আপনি আমার পুরো আর্টিকেলটি পড়লে উপকৃত হবেন আমি আজকে আপনাদের সামনে খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি আর্টিকেল নিয়ে আলোচনা করব এটি সবার জানা দরকার এবং খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি আর্টিকেল হতে চলেছে আজক তো সবাই প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত ও মনোযোগ সহকারে পড়বেন এবং পোস্টে কোন প্রকার ভুল ত্রুটি হলে কমেন্ট বক্সে জানিয়ে দিবেন আপনার মতামত তো তাহলে চলুন শুরু করা যাক আমাদের আজকের টপিক হচ্ছে

মোবাইল ফোনের ব্যাটারি ও সবকিছু ঠিক রাখার জন্য কি করা উচিত

তো তাহলে চলুন আমাদের মূল আলোচনায় চলে যাওয়া যাক

মোবাইল ফোন কেনার আগে কি কি বিষয়ের উপর লক্ষ্য রাখা উচিত

তো যারা একদম নতুন এর আগে অ্যান্ড্রয়েড ফোন এখনো কিনি নাই তাদের জন্য যখন প্রথম অ্যান্ড্রয়েড কিনে তখন কিছুটা ভেজাল হয় কারণ সে জানে না কোন ফোনটি কি রকম আপনি যদি একেবারেই নতুন হয়ে থাকেন তাহলে আপনি ফোনটা রাগে আপনার পাশে যদি কোন বন্ধু থাকে এবং তার কাছে যদি একটি হ্যান্ডসেট থাকে তাহলে আপনি তার ফোন দিয়ে গুগলে সার্চ করে আপনার বাজেটে যত টাকা আছে সে টাকা পরিমাণ করে সার্চ করুন কত টাকার ভিতরে একটি মোবাইল ফোন তাহলে আপনি ফোন বিক্রয় করার আগে সেই ফোনটি বিস্তারিত জানতে পারবেন মার্কেটে গিয়ে আপনি তাড়াহুড়া করাই হয়তোবা মোবাইলের সবগুলো ফিচার দেখতে পারেন না সেজন্য আগে গুগোল সবকিছু ভালোভাবে সার্চ করে এবং যাচাই-বাছাই করে নিবেন এবং তারপর সেটি মার্কেটি গিয়ে ক্রয় করবেন!

অবশ্যই সর্বপ্রথম দেরি দেখবেন সেটি হচ্ছে আপনার ব্যাটারি এবং সবসময় চেষ্টা করবেন 5000 এম্পিয়ার ব্যাটারী নীতি এর চেয়ে বেশি নিলে আরো ভাল হয় এবং ফোনের প্রসেসর একটু ভালোভাবে দেখবেন এছাড়াও রয়েছে ক্যামেরা ও ভিডিও রেকর্ডিং এই গুলো ভালভাবে দেখে নিবেন অনেকে আছে যারা শুধুমাত্র অল্প টাকায় বড় ফোন কিনতে চান এই কাজটি ভুলেও কখনো করবেন না কারণ আপনি যদি শুধুমাত্র অল্প টাকায় বড় একটি ফোনকে নিয়ে আসেন শুধুমাত্র তার ডিসপ্লে বড় থাকবে মোবাইলের সবকিছু কিন্তু আপনার একবারে স্লো থাকবে!

যদি আপনি এই গেম খেলার জন্য ফোন নেন তাহলে অবশ্যই ফোনটির 4 জিবি র্যাম হতে হবে তবে আমার মনে হয় আপনি যদি গেম খেলার জন্য মোবাইল নিন তাহলে অবশ্যই চেষ্টা করবেন 14000 অথবা 15 হাজার টাকা দিয়ে মোবাইল কিনতে এতে করে আপনি সবকিছু ভাল পাবেন আর তাছাড়া ওয়ান ওয়ান জিবি বা টু জিবি র্যামের মোবাইল দিয়ে গেম খেলা খুবই কষ্টকর

ব্যাটারি চার্জিং সেভ রাখার উপায়

একটি মোবাইলের মেইন হচ্ছে ফোনের ব্যাটারি যদি মোবাইলের ব্যাটারি চার্জ না থাকে তাহলে সেই ফোনটি বলতে গেলে অচল কোন কাজের না তো সেজন্য আপনার ফোনের ব্যাটারির চার্জ সবসময় সেভ রাখার চেষ্টা করবেন মোবাইলের ব্যাটারি খুব তাড়াতাড়ি চার্জ কমে যাওয়ার কয়েকটি কারণ রয়েছে যেভুল কাজগুলি করার কারণে আপনার ফোনের ব্যাটারি খুব দ্রুত নষ্ট হয়ে যাচ্ছে বা চার্জ কমে যাচ্ছে আমি কয়েকটি কারণ আপনাদের মাঝে তুলে ধরব আশা করি এইগুলো তো আপনারা ঠিকমতো পালন করতে পারেন তাহলে আপনার ফোনের চার্জ সব সময় সেভ থাকবে
.
আপনি যখন মোবাইল ফোনটি চার্জ দিবেন এবং মোবাইলটি তখন 100% চার্জ ফুল হবে তখন মোবাইলটি কিছুক্ষণ চার্জ থেকে খুলে রাখবেন সাথে সাথে মোবাইলটি ব্যবহার করবেন না যদি আপনি যার থেকে খুলে মোবাইলটি ব্যবহার করা শুরু করে দেন তাহলে আপনার সৃষ্টি হয়েছে তা সেভিং মোড এ থাকে না এটি আমি নিজের অভিজ্ঞতায় বলতেছি কারণ আমি নিজের দু’টি ফোনে এই বিষয়টি লক্ষ্য করেছি যদি আপনি সার্চ থেকে খুলে কিছুক্ষণ রেখে দেন 30 মিনিট বা 1 ঘন্টা এবং তারপরে ফোনটি ব্যবহার করেন তাহলে দেখবেন আপনার সাধারণভাবে 2 থেকে 3 ঘন্টা সময় বেশি যাবে এটি কিন্তুক আমার নিজের অভিজ্ঞতায় বললাম আমার দুটি ফোনে একই অবস্থা হয়েছিল আমি দুটি মোবাইলে এটি ট্রাই করেছি

মোবাইল এর লো ব্যাটারি এর জন্য আপনার মোবাইলের ব্যাটারি নষ্ট হয়ে যেতে পারে খুব তাড়াতাড়ি ফোনটি ব্যবহার করার সময় যখন দেখবেন যে আপনার ফোনের চার্জ 15/10 পার্সেন্ট এসে গেছে তখন আর মোবাইল ফোনটি ব্যবহার করবেন না সাথে সাথে চার্জে লাগাবেন অনেকে আছে যারা মোবাইলে 2 পার্সেন্ট চার্জ থাকা পর্যন্ত মোবাইলটি ব্যবহার করে এবং হঠাৎ করে মোবাইল টি শাট ডাউন হয়ে যায় এতে করে আপনার উপর বড় খুব পরিমাণে একটি চাপ পড়ে এবং ব্যাটারির পাওয়ার অনেকটাই কমে যায় তাই চেষ্টা করবেন কোন সময় যেন আপনার ফোন শাটডাউন হয়ে না যায়

মোবাইল ফোনে অতিরিক্ত ফাইল বা ভাইরাস এর জন্য আপনার মোবাইল ফোনের চার্জ অতিরিক্ত কাটবে অনেক ফাইল আপনার মোবাইল ফোনে রেখে দেই যেমন অ্যাপস আপনার প্রতিটা অ্যাপসের জন্য কিন্তু মোবাইল থেকে চার্জ কাটে এবং অনেক অ্যাপস এর ভিতর ভাইরাস রয়েছে যার জন্য আপনার ফোনটি অনেকটাই স্লো হয়ে যায় অতিরিক্ত ফাইল অ্যাপস এগুলো ডিলিট করে দিন তাহলে দেখতেন আপনার ফোনের স্পিড বেড়ে গিয়েছে এবং মোবাইলে থাকা ক্লিন অ্যাপস টি তে ঢুকে সব সময় ক্লিন রাখবেন

ডাটা অথবা ওয়াইফাই অন

অনেকে আছে যারা সব সময় মোবাইলের ডাটা অন করে রাখে আপনি হয়তো জানেন না এর কারনে আপনার ফোন থেকে এক্সট্রা চার্জিং কমে যায় কারণ সেটি দ্বারা আপনার ইন্টারনেট নিয়ন্ত্রণ করা হয় এ ছাড়াও অনেকে আছে যারা সব সময় ওয়াইফাই চালু রাখে হটস্পট চালু রাখে তাদের ও একই অবস্থা ফোনের চার্জ কমে যায় বিশেষ করে আপনি একটি বিষয়ের উপর লক্ষ্য করবেন আপনি যদি কোনদিন রাতে ঘুমানোর আগে কোনটির যদি ডাটা অন করে ঘুমিয়ে পড়েন তাহলে পরের দিন দেখবেন আপনার ফোনের চার্জ কতটুকু কেটেছে তাহলে আপনি বুঝতে পারবেন

তো আশা করি আমার পোস্টে আপনার কাছে ভালো লেগেছে যদি আপনার কাছে আমার পোস্টটি ভাল লাগে তাহলে অবশ্যই পোষ্টটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করবেন এবং কমেন্ট করে জানিয়ে দিবেন আপনার মতামত এছাড়াও বিভিন্ন ধরনের ট্রিক এবং ট্রিকস জানতে আমাদের ওয়েবসাইট প্রতিদিন ভিসিট করুন এবং আপনার যদি কোন ধরনের সমস্যা হয়ে থাকে অনলাইনে তাহলে কমেন্টে জানিয়ে দিন সেটি বিষয় নিয়ে একটি পোস্ট দিয়ে দেওয়া হবে তোরা সবাই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন আমাদের সাথেই থাকবেন ধন্যবাদ

Leave a Comment

Your email address will not be published.